The Fast Bangladashi Free Net Published,Best Technology And SEO Learning Web.

প্রেমিকার রাগ ভাঙ্গাতে, কি করা চাই প্রেমিকের?

প্রেমের হাটে প্রায়শই হরতাল পড়ে যায়! আপনার মনে মানুষটি রাগ করেছে? খুব খারাপ লাগছে এবং বিরক্তি ও? আপনি চাচ্ছেন রাগ ভাঙ্গাতে কিন্তু পারছেন না। আর তা যদি হয় আপনার প্রেমিকা, মেয়ে মানুষ তবে তো আর কথাই নেই। মেয়েরা খুব নাজুক মনোভাবের হয় তাই বলে তাদের কে হেলাফেলার নজরে নিয়েন না।

‘মেয়ে মানুষ যেমনতর কঠিন ভাবে জানে বাসতে ভাল ঠিক তেমনি কষ্ট পেলে নরক নামিয়ে আনে’ তাই এদের থেকে সাবধান। মেয়েদের রাগানো বা কষ্ট দিয়ে কাঁদালে যে ক্ষতি আপনারই তাও খুব জলদি তারা আপনাকের টের পাইয়ে দেবে।

প্রেমিকার রাগ ভাঙ্গানো নাকি আর হতে পারে না দুনিয়াতে। কেউ কেউ বলেন তার প্রেমিকাকে মানাতে নাকি অনেক কষ্ট করতে হয়। ১ সপ্তাহ রাগ করে থাকার পর তারপর তাকে নানা ভাবে বুঝিয়ে শুনিয়ে রাগ ভাঙ্গাতে হয়। আবার অনেকে আছেন যারা রাগকে কোন রকম কেয়ার করেন না। যা হবার হবে এই মতে চলেন। তখন দেখা যায় পাক্কা ১ / ২ কিংবা ৩ মাস কথা + দেখা না করে কাটিয়ে দিতে হয়। অনেকে আবার আছেন এমন কোন উপায় বাদ রাখেন না তার প্রেমিকাকে মানানোর জন্য। নানা রকম পদ্ধতি অবলম্বন করেও তারা ব্যর্থ হয়ে যান। প্রেমিকার রাগের ধরন আর সেই রাগের পরিস্তিতি বুঝে কি কি পদ্ধতি অবলম্বন করে আপনি সফল হলেও হতে পারেন। যদিও এসব সবার জানা তবুও মাঝে মাঝে ভুল হয়ে যায়।

BDMoU.xyZ

আসুন জেনে নেই মাশুকার মন গলাবেন কি করে_

১। সাময়িক কিংবা স্বাভাবিক মনমালিন্য ধরণের রাগঃ

এই ক্ষেত্রে প্রেমিকা সাধারণত তেমন রাগের মাথায় থাকে না। একটু বুদ্ধি করে আপনি যদি চলেন তাহলে খুব তারাতারি আপনি তাকে মানাতে পারবেন। তবে মনে রাখতে হবে যে এই রাগের ক্ষেত্রে কখনও তাকে মানাতে বেশি দেরি করতে যাবেন না। কারণ দেরি করলে সেই রাগ থেকে জন্ম নেবে কঠিন অভিমান।

সেক্ষেত্রে কৌশলে আপনাকে অগ্রসর হতে হবে যুদ্ধের ময়দানে। যেমন –
– ঠান্ডা মাথায় তাকে মানাতে চেষ্টা করুন।

– কোন মতেই রেগে বা উচ্চ স্বরে কথা বলতে যাবেন না সেই সময়।

– তার সাথে কথা বলুন, প্রথমে ফোনে কিংবা সামনা সামনি। যদিও একটু সাতপাঁচ করবে কিন্তু সেটা স্থায়ী হবে না।

– যদি সে সময় আপনারা ডেটিং এ থাকেন তাহলে আপনি কিছু সিনেমেটিক দৃশ্য করতে পারেন। যেমন তাকে গোলাপ ফুল উপহার দিতে পারেন বা তার খোপায় পড়িয়ে দিতে পারেন।

– কিছুটা স্বাভাবিক হয়ে গেলেও সে আপনার থেকে আরো বেশি কিছু আশা করবে চাইবে আপনি তাকে আরো মানান। এটা না করলে তার রাগ আবার ঊঠতে পারে।

– তার চোখে চোখ রেখে হাসির কোন কথা বলতে পারেন। এই সময়টায় সবচেয়ে বেশি উপকারি যদি আপনি তাকে হাসাতে পারেন।

২। অনেকটা ভাল মাপের রাগ হলেঃ

এমতাবস্থায় আপনাকে বেশ বেগ পেতে হবে। কারণ এটা এমন এক পরিস্তিতি যাতে আপনি একটু ভুল করলে অনেক পস্তাবেন,তার রাগ দুগুণ বেড়ে যাবে ধাপ করেই। তাই সাবধানে!

প্রেমিকা সাধারণত এ অবস্থায় বেশ রাগী মানসিকতায় থাকে। অনেক মেয়ে আছে যারা এই অবস্থায় জিনিসপত্র ভাংচুর করে, হাত পা কাটে, ঘুমের বড়ি খায় ইত্যাদি। খুব সতর্কতার সাথে কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করুন –

BDMoU.xyZ

নিজে যদি ভুল করেন তাহলে তা অকপটে স্বীকার করুন।

– রাগ কমতে সময় দিন। এ অবস্থায় কোন মতেই আপনি তার সাথে কথা বা দেখা করবেন না কিছু সময় অবধি। তবে সে দেখা করতে চাইলে ভিন্ন কথা।

– হতে পারে সে আপনার সাথে ২/৩ সপ্তাহ কথা বলবে না, কিন্তু আপনি বড়জোর তার সাথে ২ দিন এর বেশি কোন মতেই যোগাযোগ না করে থাকবেন না।

– প্রথমেই ফোন এ কথা না বলে আগে এস এম এস দিন। এমন কোন এস এম এস দিন যাতে তার মন অনেকটা ভাল হয়ে যায়।

– সে এস এম এস এর উত্তর না দিলে পর পর বেশ কয়েকটা সুন্দর সুন্দর এস এ এস পাঠান।

– ভুল যদি সে করে থাকে তাহলে সে তা নিজেই স্বীকার করবে তবে অনেক মেয়েরাই তা করে না। এ জন্য আপনি তাকে বিষয়টা ঠান্ডা মাথায় খুলে বলুন।

– সুন্দর করে ব্যপারটা বুঝিয়ে বলুন। কেন, কি কারনে আপনি এরকম করেছেন তা গুছিয়ে বলুন।

– তার সাথে দেখা করার চেষ্টা করুন। কারণ দেখা না করলে এ ক্ষেত্রে তাকে মানাতে কষ্ট হতে পারে।

– মেয়েরা ফুল খুব পছন্দ করে। তাই দেখা করতে যাওয়ার আগে আপনার প্রেমিকার পছন্দের কিছু গিফট কিনে নিয়ে যেতে পারেন। সাথে চকলেট বা তার প্রিয় খাবার নিতে ভুলবেন না। – কথা বলুন হাসিমুখে তবে বেশি হাসতে যাবেন না।

– আপনার অবস্থার কথা তাকে বলুন যে আপনি তার সাথে এতদিন যোগাযোগ না করতে পেরে অনেক কষ্টে ছিলেন।

– খুব ভাল হয় যদি প্রকৃতির মাঝে চলে যান। সবুজের ছায়ায় কিংবা নৌকা ভ্রমনে কাছে।

৩। ভিষম রাগ করলেঃ

আপনার জন্য এটা লাল সংকেত। এ ক্ষেত্রে আপনি ধরে নিতে পারেন যে আপনার উপর শনির আসর করেছে। আপনার প্রেমিকা যদি খুব বেশি রাগী হয় তাহলে সে যা খুশি তাই করতে পারে। আবার যদি খুব বেশি রাগী না হয় তারপর ও কোন নিশ্চয়তা নাই। তাই সাবধান থাকুন যাতে আপনার প্রেমিকা এই অবস্থায় না যায়। নিজের কোন ক্ষতি কিংবা রাগের মাথায় যেও কোন ভুল সিদ্ধান্ত না নেয়।

আপনি এই ধরণের পরিস্থিতিতে যা করবেন [/bb]–

– সবচেয়ে ভাল হয় যদি তাকে সময় দেন রাগ কমানোর।

– ভুলেও তার সাথে দেখা করতে যাবেন না।

– ফোন এ কথা বলতে গিয়ে যদি এরকম রাগী হয়ে যায় আর ফোনটা রেখে দেয় আপনি ফোন দেন তাকে।

– ফোন যদি বন্ধ থাকে তাহলে এস এম এস দিয়ে রাখতে পারেন।

– রাগ কমে গেলে সে আপনাকে এমনিতেই ফোন দেবে। তখন ফোন ধরার সাথে সাথে সরি বলুন খুব মধুর সুরে।

– কোনভাবেই তাকে এমনটা ভাবার সুযোগ দিবেন না যাতে সে ভেবে বসে যে আপনি তার রাগ না ভাঙ্গিয়ে আপনার মত আছেন। এতে করে তার মনে প্রভাব টা খারাপ হবে যে আপনার কাছে তার ও তার অভিমানের কোন মূল্য নেই।

– সে আপনাকে অনেক আজেবাজে কথা বলবে, অনেক দোষ দেবে কিন্তু ভুলেও কোন সাড়াশব্দ করতে যাবেন না। শুধু শুনে যাবেন।

– আপনি যদি ভুল করে থাকেন তাহলে তা মেনে নিন সেই সময়েই। না হলে আপনাকে কঠিন অবস্থার মুখোমুখি হলেও হতে পারে।

– আর যদি ভুলটা তার হয়ে থাকে তাহলেও সেই সময় আপনি আপনার নিজের কাধে দোষ নিয়ে নিন।

– পরে যখন তার রাগ কমবে তখন তার ভুল ধরিয়ে দিন। এতে সে লজ্জিত হবে এবং আপনার কাছে ক্ষমা চাইবে।

– দেখা যদি করেন এই সময়ে তাহলে কোনমতেই তার সাথে রাগ দেখাবেন না।

– তবে এটা ভুলে গেলে চলবে না যে আপনাকে তার রাগ ভাঙ্গানোর জন্য খুব বেশি সময় দেয়া হবে না।

– এ অবস্থায় আপনি কতটা রোমান্টিক তা যাচাই হয়ে যাবে। খুবই রোমান্টিক হওয়ার চেষ্টা করুন এই সময়।

– তাকে যদি পারেন কিছুটা ভালবাসার ছোঁয়া দিয়ে দিন। তবে মাত্রাতিরিক্ত না।

– ভাল হয় যদি কবিতা পারেন বা কোন খ্যাতিমান কবির কবিতা আপনার মুখস্ত থাকে তাহলে সে সময় এটা আপনার কাজে লাগবে।

– নিজের যদি গাড়ি থাকে তবে তাকে নিয়ে লং ড্রাইভ এ যান। এমন কোন যায়গায় যেখানে গেলে সব রাগ দূর হয়ে যাবে।

আর যদি আপনার প্রেমিকার রাগের ব্যাপারটা আপনার তেমন তোয়াক্কা না হয় তবে আপনার জন্য কিছু দরকারি সমাধান আছে, যদিও বেশিরভাগ মেয়ে এতে আরো অনেক বেশি কষ্ট পেয়ে অনেক বেশি দূরে চলে যাবে।

১। রাগারগি করতে চাইলে বলে দিন আপনার এসব করতে ইচ্ছা করছে না।

২। তার যত দোষ আছে তা সরাসরি জানিয়ে দিন।

৩। কোন রকম ইমোশনাল ব্লাকমেইল করতে চাইলে পাত্তা দিবেন না।

৪। বেশি রাগ দেখিয়ে যদি কথা বন্ধ রাখে তাহলে আপনিও বন্ধ রাখুন।

Mehadi Hasan

About Mehadi Hasan

নিজেকে নিয়ে বলার মতো তেমন কিছুই নাই তবে প্রযুক্তি কে আমার ভালো লাগে তাই নিজেকে সবার মাঝে বিলিয়ে দেয়া।

Leave a Reply