Learn & Share Everything About of Technology.!

আংশিক বা পুরো বিক্রি হতে পারে এইচটিসি, সম্ভাব্য ক্রেতা গুগল

TipsRain.Com

১৯৯৭ সালে চুক্তিভিত্তিক উৎপাদনকারী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয় এইচটিসি। সংগৃহীত ছবি

(প্রিয়.কম) তাইওয়ানের প্রতিষ্ঠান এইচটিসি সম্ভাব্য ক্রেতা খুঁজছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রের বরাত দিয়ে ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে বলা হয়, তীব্র প্রতিযোগিতাপূর্ণ বাজারে টানা কয়েক প্রান্তিক ধরে লোকসানে রয়েছে এ প্রতিষ্ঠান। বাধ্য হয়ে এক সময়ের জনপ্রিয় এই প্রতিষ্ঠানটি আংশিক বা পুরো বিক্রি হওয়ার উপায় খুঁজছে।

এইচটিসি স্মার্টফোন নির্মাতা হিসেবে ব্যাপক জনপ্রিয়। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে প্রতিষ্ঠানটি বাজারে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) হেডসেট ভাইভ দিয়ে ভালো ব্যবসা করলেও স্মার্টফোন দিয়ে আশানুরূপ ব্যবসা করতে পারছে না। প্রতিবেদনে বলা হয়, বাজারে টিকে থাকতে এইচটিসি নানা উদ্যোগের কথা বিবেচনা করছে। আর এরমধ্যে স্মার্টফোন ব্যবসা এবং ভিআর ব্যবসা বিভাগ আলাদা করা এবং বিক্রির পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

সূত্রমতে, ব্যবসা বিক্রির লক্ষ্যে এরই মধ্যে একজন পরামর্শক নিয়োগ দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান কমস্কোরের তথ্যমতে, এইচটিসির ইউ১১ স্মার্টফোনের আগের ডিভাইস ইউ আল্ট্রা খুব একটা সাড়া ফেলতে পারেনি। ফলে যুক্তরাষ্ট্রের সেলফোন অপারেটরগুলো ডিভাইসটি বিক্রিতে রাজি হয়নি। তবে প্রতিষ্ঠানের নতুন স্মার্টফোন ইউ১১ ভালো করেছে।

সূত্রের বরাত দিয়ে ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, সার্চ জায়ান্ট গুগলের মালিক প্রতিষ্ঠান অ্যালফাবেট ইনকর্পোরেশন সম্ভাব্য ক্রেতার তালিকায় রয়েছে।

এইচটিসি চুক্তি ভিত্তিক উৎপাদনকারী হিসেবে ১৯৯৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০০২ সালে প্রতিষ্ঠানটি মাইক্রোসফট এর সাথে উইন্ডোজ ভিত্তিক ফোন তৈরির জন্য একটি চুক্তি করে। আর এই চুক্তিই বিশ্বব্যাপী এইচটিসিকে শীর্ষ উৎপাদনকারীর তকমা এনে দেয়। এছাড়া প্রতিষ্ঠানটি ২০০৮ সালে প্রথম অ্যান্ড্রয়েড ভিত্তিক স্মার্টফোন উৎপাদন করে।

সূত্র: ব্লুমবার্গ

Mehadi Hasan

About Mehadi Hasan

নিজেকে নিয়ে বলার মতো তেমন কিছুই নাই তবে প্রযুক্তি কে আমার ভালো লাগে তাই নিজেকে সবার মাঝে বিলিয়ে দেয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *